সুপার মার্কেটে ভাঙা হল গনেশের মূর্তি , তারপরই ভাইরাল স্যোসাল মিডিয়ায় ।

International Others

মানামার , সৌরভ রায়চৌধুরী : সুপারমার্কেটে রাখা গণেশের মূর্তি। হঠাৎ করে সেখানে এলেন বোরখা পরিহিত দুই মহিলা। এবং এসেই একের পর এক মূর্তি মেঝেতে ফেলে ভাঙতে শুরু করলেন। শুধু তাই নয়, তাঁদেরই একজন চিৎকার করে বলতে শুরু করলেন, এটা মুসলিম দেশ?‌ এখানে এই মূর্তি কেন?‌ সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে বাহরিনের রাজধানী মানামার একটি সুপার মার্কেটের এই ঘটনার ভিডিও। যা নিয়ে ইতিমধ্যে তীব্র বিতর্কও দেখা দিয়েছে।

সামনেই গণেশ চতুর্থী। আর তাই ওই সুপার মার্কেটটিতে রাখা ছিল বেশ কিছু গণেশের মূর্তি। ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, দুই বোরখা মহিলা সুপার মার্কেটটিতে এসে হঠাৎই তাকে সাজানো গণেশ মূর্তিগুলোর দিকে এগিয়ে যান। তারপর তাঁদের একজন সেই মূর্তিগুলোকে একটা একটা করে মাটিতে ফেলে ভাঙতে থাকেন। তখনই আরেক মহিলা ফোন বের ভিডিও তুলতে শুরু করেন। পাশাপাশি ওই সময় তাঁকে আরবি ভাষায় সুপার মার্কেটে উপস্থিত কর্মচারীদের উপর চিৎকার করতেও শোনা যায়। ওই মহিলা বলেন, ‘‌‘‌এটা মহম্মদ বিন ইসার দেশ?‌ আপনাদের কি মনে হয় তিনি এর অনুমতি দেবেন?‌’‌’‌
এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই দেখা দিয়েছে নয়া বিতর্ক। মুহূর্তে সেটি সমস্ত জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে। কেউ প্রশ্ন তোলেন, এরপরও মানুষ এই দেশগুলোতে ঘুরতে যেতে চায়?‌ যদিও ইতিমধ্যে দু’‌জনের মধ্যে ৫৪ বছর বয়সি একজন মহিলাকে গ্রেপ্তারও করেছে স্থানীয় পুলিশ। বাহরিনের অভ্যন্তরীন মন্ত্রকের পক্ষ থেকে টুইট করে সেকথা জানানোও হয়েছে। উল্লেখ্য, বাহরিনে মোট জনসংখ্যার ৯.‌৮ শতাংশ হিন্দু। এছাড়া ১৩ লক্ষ জনসংখ্যার মধ্যে ৪ লক্ষই ভারতীয়। আর এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে সেখানে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *